যশোরে মোটরসাইকেল চুরি মামলায় চোরচক্রের ৫ সদস্যের রিমান্ড মঞ্জুর

এখন সময়: সোমবার, ৪ মার্চ , ২০২৪, ১০:০৩:৪৪ এম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে মোটরসাইকেল চুরি মামলায় আন্তঃজেলা চোরচক্রের ৫ সদস্যের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। রোববার আসামিদের রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইমরানা আহম্মেদ এ আদেশ দিয়েছেন। 

আটককৃতরা হলো, সাতক্ষীরার শ্যামনগরের চিংড়াখালি গ্রামের আব্দুল মজিদ সরদারের ছেলে যশোর উপশহরের এ-ব্লকের বাসিন্দা আল আমিন সরদার ওরফে আলমগীর, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদার ইব্রাহিমপুর স্কুলপাড়ার আজিজুল হকের ছেলে সাগর আহম্মেদ নিলু ওরফে রাসেল, আলমডাঙ্গার গৌড়িহাদ ৩নং ভাগবাড়িয়ার মৃত আলাউদ্দিন বাবুলের ছেলে শুভ, কান্তাপুর গ্রামের মইনুল হকের ছেলে সেলিম রেজা ও কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের গোয়ালগ্রাম জোয়াদ্দার পাড়ার মৃত জাকের মালিথা ওরফে পাশা মালিথার ছেলে আয়ুব আলী মালিথা।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত ১ আগস্ট রাতে যশোর সদরের তেঘরিয়া গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে জাহিদুল ইসলামের বাড়ি থেকে বাজাজ কোম্পানির একটি পালসার মোটরসাইকেল (যশোর-ল-১৩-৫৬৮৪) চুরি হয়ে যায়। এ ঘটনায় জাহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে অপরিচিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে গত ২৬ নভেম্বর কোতয়ালি থানায় একটি মামলা করেন।

চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধার অভিযানে নামে ডিবি পুলিশ। এক পর্যায়ে ডিবি পুলিশের এলআইসি টিম তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে মোটরসাইকেল চুরির সাথে জড়িত চোরচক্রকে শনাক্ত করেন। যশোর উপশহর এলাকায় অভিযান চালিয়ে কুখ্যাত মোটরসাইকেল চোর আল আমিন সরদার ওরফে আলমগীরকে আটক করেন। এ সময় তার কাছ থেকে চুরির কাজে ব্যবহৃত ১টি মাস্টার চাবি ও ১টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। এরপর তার স্বীকারোক্তিতে চুয়াডাঙ্গা ও কুষ্টিয়া জেলায় আলদা অভিযান চালিয়ে চোরচক্রের আরও ৪ সদস্যকে আটক এবং তাদের কাছ থেকে ৫টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে তেঘরিয়া গ্রামের জাহিদুল ইসলামের বাড়ি থেকে চুরি যাওয়া মোটরসাইকেলটি উদ্ধার হয়। আটক ৫ জনকে আদালতে সোপর্দ করে তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রত্যেকের ৭ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন। গতকাল আসামিদের রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে বিচারক প্রত্যেকের ১ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।