এমবিবিএস ১ম পেশাগত পরীক্ষার ফল

আদ্-দ্বীন সকিনা উইমেন্স মেডিকেল কলেজ যশোরের সাফল্য

এখন সময়: শনিবার, ২ মার্চ , ২০২৪, ০৭:৩০:২২ পিএম

 

 

প্রেসবিজ্ঞপ্তি: প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নামে খুলনায় প্রতিষ্ঠিত শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের অধীন এমবিবিএস প্রথম পেশাগত পরীক্ষায় অবিস্মরণীয় সাফল্য অর্জন করেছে যশোরের পুলেরহাটে অবস্থিত আদ্-দ্বীন সকিনা উইমেন্স মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা।

২২ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখে ফলাফল প্রকাশিত হয়। এতে শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের অধীন প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত বৃত্তিমূলক এমবিবিএস পরীক্ষায় পাশের হারের দিক থেকে ৯টি মেডিকেল কলেজের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছে বেসরকারি এই মেডিকেল কলেজটি। পাশের হার ৮৯.৪৭ শতাংশ। এই তালিকায় ২য় স্থানে রয়েছে আদ্-দ্বীন ফাউন্ডেশন পরিচালিত আদ্-দ্বীন আকিজ মেডিকেল কলেজ, খুলনা। তাদের পাশের হার ৮২.০৫ শতাংশ।

১ নভেম্বর ২০২৩ তারিখে শুরু হওয়া ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের মে-২০২৩ এর পরীক্ষায় নিজেদের কেন্দ্রেই অংশ নেন আদ্-দ্বীন সকিনা উইমেন্স মেডিকেল কলেজটির দেশি-বিদেশী ৫৭ জন ছাত্রী। এদের মধ্যে কৃতকার্য হয়েছেন ৫১ জন।  ঈর্ষনীয় এই ফলাফলে দারুন উচ্ছসিত প্রতিষ্ঠানটির সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

শিক্ষার্থীরা বলেন, শিক্ষকদের একান্ত সহযোগিতা এবং কলেজ কর্তৃপক্ষের দিক নির্দেশনায় আমাদের এই ভাল ফলাফল অর্জন সম্ভব হয়েছে।

মেডিকেল কলেজটি থেকে পরীক্ষায় ২৩ জন বিদেশি ছাত্রী অংশ নিয়েছিলেন। এরা ভারতের নয়া দিল্লী, অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহার, গুজরাট, কাশ্মীর, তামিলনাড়ু, ঝাড়খান্ড, উত্তর প্রদেশ ও কলকাতা থেকে আসা। ব্যাচ-১১ এর মেধাবী ছাত্রী আফরিন আলম খান এনাটমিতে অনার্স মার্কস পাওয়ার বিরল গৌরব অর্জন করেছেন।

ছাত্রীদের সাফল্যে ফেজ-১ এর শিক্ষকবৃন্দও খুশি।

২০১২ সালে প্রতিষ্ঠিত বেসরকারি মেডিকেল কলেজটি ভালো ফলাফল অর্জনে বরাবরই অবস্থান ধরে রেখেছে বলে মনে করেন মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ও একাডেমিক কো-অর্ডিনেটর অধ্যাপক ডা. সনজয় সাহা।

তিনি বলেন, আদ্-দ্বীন সকিনা উইমেন্স মেডিকেল কলেজ মেডিকেল শিক্ষা ব্যবস্থায় বিপ্লব আনার চেষ্টা করছে। দক্ষিণবঙ্গের সর্ববৃহৎ এই মেডিকেল কলেজ অনন্য সকল বৈশিষ্ট্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। আমাদের নিজস্ব ক্যাম্পাসে ছাত্রীদের আবাসিক ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে সুপ্রশস্ত লাইব্রেরী, দক্ষ শিক্ষক, সুসজ্জিত ল্যাব এবং ডিপার্টমেন্ট। যেখান থেকে তারা তত্ত্বীয় এবং ব্যবহারিক উভয় জ্ঞান ভালভাবে অর্জনে সক্ষম হচ্ছে। ইতিপূর্বে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় এবং রাজশাহী মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত পেশাগত পরীক্ষাগুলোতে আমাদের ছাত্রীরা সফলতার সাক্ষর রেখেছে।

শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয় খুলনার অধীন সরকারি বেসরকারি ৯টি মেডিকেল কলেজ রয়েছে। প্রথম পেশাগত পরীক্ষায় বিশ^বিদ্যালয়ের অধীন অধ্যয়নরত ছাত্রীরা ফলাফলে এগিয়ে রয়েছে। পরীক্ষায় মোট ৮ জন অনার্স মার্কস পেয়েছেন। এদের মধ্যে ছাত্রী ৫জন।