শ্রীপুরে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে ২৮ রাউন্ড গুলিবর্ষণ পুলিশের, আগ্নেয়াস্ত্রসহ যুবক আটক

এখন সময়: শুক্রবার, ১২ জুলাই , ২০২৪, ০৫:৫৭:৩৬ পিএম

শ্রীপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি : মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার শ্রীকোল ইউনিয়নের ছোনগাছা গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার ছোনগাছা গ্রামে ঈদগাহ মাঠের সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ২৮ রাউন্ড গুলি ছোড়ে ও অগ্রেœয়াস্ত্রসহ এক যুবককে আটক করেছে। স্থানীয় হারেজ মণ্ডল ও শ্রীকোল ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার চাঁদ আলী গ্রুপের লোকজনের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়।
সংঘর্ষে আহত তিন জনকে মাগুরা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, মিল্টন লস্কর (৩৩), ফয়জুল হক সাগর, (৩২) ও আগ্নেয়াস্ত্র আটক সুমন শেখ (২৫)।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে দুই গ্রুপের লোকজনের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিরোধ চলছে। যার জের ধরে চাঁদ আলী মেম্বারের সমর্থক ও গ্রামের মাতব্বর হারেজ মন্ডলের সমর্থকেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
স্থানীয়রা আরো জানান, ছোনগাছা গ্রামের সুমন নামের এক যুবক একটি পিস্তল বের করে হারেজ মণ্ডলের ছেলে মিজান মণ্ডলের ওপর হামলা চালায়। পরে স্থানীয়রা তাকে আটক করে। এ সময় অস্ত্রধারী যুবক সুমনের সাথে থাকা এনামুল শেখ দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ খবর শোনার পর পার্শ্ববর্তী খামারপাড়া গ্রামের মিল্টন লস্কর, ফয়জুল হক সাগর ও সুমন মোটরসাইকেলে করে বিষয়টি দেখতে যায়।
তখন চেয়ারম্যান কুটি মিয়ার সমর্থক বলে মিল্টন ও সাগরকে চাঁদ আলী গ্রুপের লোকজন কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ সময় তাদের সাথে থাকা সুমন দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে হারেজ মণ্ডল গ্রুপের লোকজন ও চাঁদ আলী গ্রুপের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। হারেজ মণ্ডল গ্রুপের লোকজন চাঁদ আলী গ্রুপের বেশ কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়।
শ্রীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ তাসমীম আলম বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।