বাগেরহাটে মঞ্চস্থ হলো নাটক ডাকরা এবং তারপর...

এখন সময়: বুধবার, ৭ ডিসেম্বর , ২০২২ ১৬:৩১:১১ pm

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার ডাকরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে মঞ্চায়ন হলো বধ্যভুমি কেন্দ্রীক নাটক ডাকরা এবং তারপর...। শনিবার সন্ধায় এ নাটকটি মঞ্চায়ন হয়।
১৯৭১ সালের ২১ মে ডাকরা গ্রামে বাগেরহাট জেলার রাজাকার কমান্ডার রজ্জব আলী ফকিরের নেতৃত্বাধীন বাহিনী প্রায় ১ হাজার হিন্দু সম্প্রদায়ের লোককে হত্যা করে। তারা এখানে লুটপাট,অগ্নি সংযোগ এবং ধর্ষণের মত জঘন্য অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ঘটায়। এ প্রসংঙ্গে বিষ্ণুপদ বাগচী ‘ডাকরা গণহত্যা’ নামক একটি বই লিখেছেন। এই বইয়ের কাহিনী এবং এই তান্ডবে বেচে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষাৎকারকে উপজীব্য করে নাটকটি মঞ্চায়িত হয়। পিনপতন নীরবতার মধ্যদিয়ে দেড় ঘন্টাব্যপী মঞ্চায়িত এ নাটকে দর্শকদের কাছে জীবন্ত হয়ে ওঠে একাত্তরে পাকবাহিনীর দোসর রাজাকারদের তাণ্ডবলীলার একটি খন্ডচিত্র। নাট্যকার শামসুল হাদীর রচনায় এবং নির্দেশনায় ২শ’ শিল্পী এবং কলা-কুশলীর অংশ গ্রহনে নাটকটি মঞ্চস্থ হয়।
নাটক মঞ্চস্থ হওয়ার পুর্বে এখানে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান। প্রধান অতিথি হিসাবে এ সভায় বক্তৃতা করেন পরিবেশ,বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার এম পি। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকলা ও চলচিত্র বিভাগের পরিচালক আফসানা করিম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক খোন্দকার রিজাউল করিম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রামপাল মোঃ কবির হোসেন, চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ রামপাল সেখ মোয়াজ্জেম হোসেন। বক্তৃতা করেন চেয়ারম্যান বাশতলী ইউনিয়ন পরিষদ মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল,চেয়ারম্যান পেড়িখালী ইউনিয়ন পরিষদ হাওলাদার রফিকুল ইসলাম, জেলা কালচারাল অফিসার মোঃ রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।