লোহাগড়ায় ‘ফেসবুক আইডি থেকে মহানবীকে কটুক্তির কথা’ স্বীকার আকাশের

এখন সময়: শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর , ২০২২ ২৩:০৪:৫৭ pm

ফরহাদ খান, নড়াইল : ফেসবুকে নিজের আইডি থেকে মহানবীকে (সাঃ) কটুক্তি করে মন্তব্য করেছে মর্মে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে নড়াইলের দিঘলিয়া ইউনিয়নের সাহাপাড়ার আকাশ সাহা।

মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে জাতীয় শোকদিবসসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি সভায় পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় পিপিএম (বার) জানান, আদালতে আকাশ সাহা জবানবন্দিতে জানিয়েছে যে; তার নিজের আইডি থেকে কটূক্তি করেছে। 

এদিকে, হঠাৎ করে ফেসবুকে বিভিন্ন আইডি থেকে গুজব ছড়ানো হয়েছে যে, দিঘলিয়ার হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর ও মন্দিরে হামলা মামলায় জাহাঙ্গীর ইসলাম নামে একব্যক্তি আকাশ সাহার নামে ভুয়া আইডি খুলে মহানবীকে (সাঃ) কটুক্তি করেন। এ ধরণের গুজবে কান না দেয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়। ফেসবুকে এ ধরণের কোনো পোস্ট বা মন্তব্য দেখলে তা মুছে ফেলার কথাও বলেন পুলিশ সুপার।

গত দু’তিন ধরে গ্রেফতারকৃত আসামিদের একটি ছবি ব্যবহার করে জাহাঙ্গীর ইসলাম নাম দিয়ে ফেসবুকে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে, তিনি (জাহাঙ্গীর) আকাশের নামে ভুয়া আইডি খুলে মহানবীকে (সাঃ) কটুক্তি করেন। এমনকি বিভিন্ন গণমাধ্যমেও আকাশ সাহার নামে ভুয়া আইডি খুলে মহানবীকে (সাঃ) কটুক্তি করা হয়েছে বলে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। 

যদিও সাহাপাড়ার বাড়িঘর ও দোকান ভাঙচুর এবং মন্দিরে হামলা মামলায় গ্রেফতারকৃত ১০ জনের মধ্যে জাহাঙ্গীর ইসলাম নামে কেউ নেই বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মিজানুর রহমান।

পুলিশ জানায়, গত ১৭ জুলাই নড়াইলের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোরশেদুুল আলমের আদালতে আকাশ সাহার তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়। ফেসবুকে নিজের আইডি থেকে মহানবীকে (সাঃ) কটুক্তি করে মন্তব্য করেছে মর্মে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে আকাশ সাহা।

এর আগের দিন ১৬ জুলাই রাতে খুলনা থেকে আকাশ সাহাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার নামে ওইদিন (১৬ জুলাই) রাত ৯টা ১৫ মিনিটে দিঘলিয়া গ্রামের সালাহ উদ্দিন কচি সরদার বাদি হয়ে লোহাগড়া থানায় আকাশের নামে ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে দাঙ্গা সৃষ্টির অপরাধ’ সংক্রান্ত মামলা দায়ের করেন।

অন্যদিকে, সাহাপাড়ার বাড়িঘর ও দোকান ভাঙচুর এবং মন্দিরে হামলার ঘটনায় ২০০ থেকে ২৫০ জনকে আসামি করে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করে পুলিশ।

এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মিজানুর রহমান জানান, গ্রেফতারকৃত ১০জনের মধ্যে চারজনকে তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমাণ্ড শেষে সবাইকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ জুলাই লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া সাহাপাড়ার কলেজছাত্র আকাশ সাহার ফেসবুকে মহানবীকে (সাঃ) নিয়ে কটুক্তির ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। বিষয়টি ওইদিন জুম্মার নামাজের পর বিভিন্ন পেশার মানুষের নজরে আসে। এরপর বিক্ষুদ্ধ লোকজন আকাশ সাহার গ্রেফতার ও বিচার দাবিতে তাদের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ করেন। ওইদিন বিকেল থেকে উত্তেজনা আরো বাড়তে থাকে। বিক্ষুদ্ধ লোকজন একপর্যায়ে সাহাপাড়ার পাঁচটি বাড়ি ও দিঘলিয়া বাজারের ছয়টি দোকান ভাংচুর করেন। এর মধ্যে গোবিন্দা সাহার বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে দুই রুম বিশিষ্ট দেয়ালকরা টিনশেডের ঘরটি পুড়ে গেছে। এছাড়া সাহাপাড়ার মন্দিরের চেয়ার ও সাউন্ডবক্স এবং আখড়াবাড়ি মন্দিরের টিনের চালা ভাঙচুর ও মহাশ্মশান কালিবাড়ি মন্দির সামান্য ক্ষতি করে বিক্ষুদ্ধরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও র‌্যাব মোতায়েন হয়।