এসএসসির নীতিমালা প্রকাশ যশোর শিক্ষা বোর্ডের, ব্যত্যয়ে আইনি ব্যবস্থা

এখন সময়: শনিবার, ২ মার্চ , ২০২৪, ০৭:৫৬:১৪ পিএম

 

মিরাজুল কবীর টিটো: মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষা সুষ্ঠু ও নকলমুক্ত পরিবেশে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে একটি নীতিমালা প্রকাশ করেছে যশোর শিক্ষা বোর্ড। প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে এটি আপলোড করা হয়েছে। সেখান থেকে নীতিমালাটি ডাউন লোড করে অনুসরণের মাধ্যমে পরীক্ষা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে কেন্দ্র সচিবদের। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে এবারের এসএসসি পরীক্ষা।

বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আহসান হাবীব জানান, পরীক্ষা গ্রহণে নীতিমালার ব্যত্যয় ঘটলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যশোর জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক শোয়াইব হোসেন, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নারায়ণ চন্দ্র দেবনাথ ও নিউটাউন বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুরাইয়া শিরিন জানান, বোর্ড থেকে প্রকাশিত নীতিমালার আলোকে পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে।

যশোর শিক্ষা বোর্ড প্রকাশিত নীতিমালায় বলা হয়, মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের পূর্বশর্তসমূহ রেজিস্ট্রেশন করা। এটি নিয়মিত ও অনিয়মিত পরীক্ষার্থীদের জন্য প্রযোজ্য। বোর্ডের অনুমোদিত বিদ্যালয় থেকে দশম শ্রেণিতে শিক্ষাক্রম শেষের পর রেজিস্ট্রেশনভুক্ত শিক্ষার্থী মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় নিজ নিজ বিদ্যালয় থেকে অংশ নিতে পারবে। এক্ষেত্রে আন্তঃবোর্ডের বদলিকৃত শিক্ষার্থীরা এই বোর্ডের রেজিস্ট্রেশন পাওয়ার পর পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়, কেবলমাত্র বৈধ রেজিস্ট্রেশনধারী ও নির্বাচনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার আবেদন ফরম পূরণ করতে পারবে। বোর্ড নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পরীক্ষার আবেদন ফরম অনলাইনে পূরণ করতে হবে। পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য ফরম পূরণ করা বাধ্যতামূলক। পরীক্ষার আবেদন ফরম ও রেজিস্ট্রেশনের  তথ্যে মিল থাকতে হবে। কোনো তথ্যে গরমিল থাকলে ও গরমিলের কারণে যদি কোনো পরীক্ষার্থীর ফল প্রকাশ না করা হয়; তার জন্য পরীক্ষার্থী এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান দায়ী থাকবেন।

নীতিমালায় আরো বলা হয়েছে,  রেজিস্ট্রেশন বিহীন কোনো শিক্ষার্থীর আবেদন ফরম বোর্ডে জমা দেয়া যাবে না। বোর্ডের বিধিমোতাবেক যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রেজিস্ট্রেশন হয়েছে ওই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমেই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। রেজিস্ট্রেশনের মেয়াদ এবং বয়স থাকলে অকৃতকার্য অথবা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি এরকম শিক্ষার্থী সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে অনিয়মিত পরীক্ষার্থী হিসেবে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। পরীক্ষার আবেদন ফরম জমা, পরীক্ষা চলাকালীন, পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর অথবা ফল প্রকাশিত হওয়ার পর কিম্বা যে কোনো সময়ে রেজিস্ট্রেশন অবৈধ বা ভুয়া প্রমাণিত হলে পরীক্ষার ফল বাতিল বলে গণ্য হবে।